অগ্নিদগ্ধ সেই নারী মারা গেছেন

২২

 

 

নিউজদেশবাংলা ডেক্স::  লক্ষ্মীপুরের কমলনগর উপজেলায় আগুনে দগ্ধ তরুণী শাহিনুর আক্তার (২৪) ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেছেন।

সোমবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয় বলে জানিয়েছেন ঢামেক পুলিশ ফাঁড়ির পরিদর্শক বাচ্চু মিয়া। শাহেনুর চট্টগ্রামের রাউজান উপজেলার সোনাগাজী গ্রামের জাফর আলমের মেয়ে।

চিকিৎসকদের বরাত দিয়ে বাচ্চু মিয়া বলেন, শাহেনুরের শরীরের ৫৫ শতাংশ পুড়ে গিয়েছিল। আজ বেলা ১১টার পর চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এর আগে গতকাল রোববার স্ত্রীর স্বীকৃতি আদায়ের জন্য চট্টগ্রাম থেকে লক্ষ্মীপুরে ছুটে এসেছিলেন ওই নারী। পরে কমলনগর উপজেলার আইয়ুবনগর এলাকার একটি সয়াবিন ক্ষেত থেকে দগ্ধ অবস্থায় তাকে উদ্ধার করা হয়।

শাহেনুরকে লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে পাঠানো হয়। আজ সেখানেই চিকিৎসাধীন তার মৃত্যু হয়।

জানা গেছে, লক্ষ্মীপুরের কমলনগর উপজেলার চরফলকন ইউনিয়নের আইয়ুবনগর এলাকায় বসবাসকারী সালাউদ্দিন নামে এক ব্যক্তির সঙ্গে সম্পর্ক ছিল শাহেনুরের। তাদের মধ্যে ফোনে সম্পর্ক গড়ে ওঠে। সালাউদ্দিন বিবাহিত ছিলেন। স্ত্রী ও দুই ছেলেকে থাকতেন শ্বশুরবাড়িতে।

শাহেনুর সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অভিযোগ করেছিলেন, মোবাইল ফোনে সালাউদ্দিনের সঙ্গে তার পরিচয় হয়। প্রায় দেড় বছর আগে কাজী অফিসে তাদের বিয়ে হয়। ছয় মাস আগে জেনেছি সালাউদ্দিন বিবাহিত। এ কথা শুনে কিছুদিন আগেও কমলনগর এসেছি। কিন্তু স্ত্রীর স্বীকৃতি পাইনি।

ফের শুক্রবার আবার লক্ষ্মীপুরে আসি। কিন্তু এবারও স্ত্রী হিসেবে স্বীকৃতি দেয়া হয়নি। স্ত্রীর স্বীকৃতি চাওয়ায় আমার গায়ে আগুন লাগিয়ে দিয়েছে সালাউদ্দিন।

এ বিষয়ে জানতে সালাউদ্দিনের মোবাইল ফোনে একাধিকবার কল করেও সাড়া মেলেনি। ঘটনার পর থেকে তার পরিবারের সদস্যরাও পলাতক রয়েছেন।

লক্ষ্মীপুরের পুলিশ সুপার আ স ম মাহাতাবউদ্দিন জানান, দগ্ধ তরুণীকে পুলিশের দায়িত্বে চিকিৎসার জন্য ঢাকায় পাঠানো হয়। ঘটনার কারণ জানতে তদন্ত চলছে।

 

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

ফেইসবুক