আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতের তদন্ত প্রত্যাখ্যান করেছে মিয়ানমার



img-248340

রোহিঙ্গা মুসলিমদের উপর মিয়ানমার সেনাবাহিনীর নৃশংসতায় আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতের (আইসিসি) তদন্ত প্রত্যাখ্যান করেছে দেশটি। বৃহস্পতিবার আইসিসি রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে রক্তাক্ত সামরিক নৃশংসতার পূর্ণাঙ্গ তদন্ত অনুমোদন করে। শুক্রবার এর জবাব দিয়েছে মিয়ানমার। তারা বলেছে, এই তদন্ত অনুমোদন আন্তর্জাতিক আইন অনুযায়ী দেয়া হয় নি। ইয়াঙ্গুন থেকে এ খবর দিয়েছে বার্তা সংস্থা এএফপি।

মানবাধিকার বিষয়ক গ্রুপগুলো আর্জেন্টিনায় আলাদা মামলা করেছে মিয়ানমারে গণতন্ত্রের সাবেক আইকন বলে পরিচিত বেসামরিক নেত্রী অং সান সুচির বিরুদ্ধে এবং জাতিসংঘের শীর্ষ আদালতে গণহত্যার অভিযোগ উত্থাপন করা হয়েছে। এসব মিলে মিয়ানমারের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক চাপ ক্রমশ বৃদ্ধি পাচ্ছে। এরই মধ্যে রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে নৃশংসতার অভিযোগ তদন্তের অনুমোদন দিয়েছে আইসিসি।

কিন্তু মিয়ানমার বার বার রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে দমনপীড়নকে বৈধতা দেয়ার চেষ্টা করছে। তারা বলছে, জঙ্গিদের দমন করতে তারা ওই অভিযান পরিচালনা করেছে। এ ছাড়া তারা বার বারই আইসিসির কর্তৃত্ব মেনে নিতে অস্বীকৃতি জানায়। একই কথার পুনরাবৃত্তি করে তারা শুক্রবারও। এদিন এক সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন সরকারের মুখপাত্র জাওয়া হতাই।

তিনি বলেন, মিয়ানমারের বিরুদ্ধে আইসিসির তদন্ত আন্তর্জাতিক আইন অনুসরণ করে করা হচ্ছে না। কোনো রকম নিয়ম লঙ্ঘন হয়ে থাকলে তার তদন্ত করবে মিয়ানমারের নিজস্ব কমিটি এবং প্রয়োজন হলে জবাবদিহিতা নিশ্চিত করবে।

উল্লেখ্য, আইসিসির সদস্য রাষ্ট্র হিসেবে স্বাক্ষরকারী দেশ নয় মিয়ানমার। তা সত্ত্বেও গত বছর এই আদালত রায় দেয় যে, রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে অপরাধের কারণে বিচার করার এক্তিয়ার তাদের আছে। কারণ, এসব শরণার্থী আশ্রয় নিয়েছে বাংলাদেশে। এই দেশটি তাদের একটি সদস্য।

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

ফেইসবুক