“মৌলভীবাজার মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতি স্তম্ভে দূর্গা পূঁজা“

নিউজ ডেস্ক::   কেউ অস্বীকার করতে পারবে না যে মৌলভীবাজারস্থ মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতি স্তম্ভ ও চত্বরে দূর্গা পুঁজা হচ্ছে না। মুক্তি যুদ্ধের সাথে দূর্গা পুজারতো কোন সর্ম্পক নাই যে এখানে পুঁজা করতে হবে। তাহলে কোন সাহসে এখানে পুঁজা হচ্ছে ? নিশ্চয়ই কোন খুটির জোর আছে বলেই এখানে পুঁজা হচ্ছে। মুক্তি যুদ্ধ স্মৃতি স্তম্ভ এবং চত্বর তো কোন দেবোত্তর সম্পতির উপর প্রতিষ্টিত হয়নি। এই জায়গা টি একান্ত মালিক সড়ক ও জনপথ বিভাগ। মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতি স্তম্ভ তৈরী হওয়ার আগে হরিজন যুব সংঘ বিশেষ উদ্দেশ্য সাধনের জন্য (মদ বিক্রী জায়েজ করণ) দূর্গা পুঁজা করতো। এখন মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতি স্তম্ভ ও চত্বর নির্মানের পর তাদের দখল প্রতিষ্টা তথা জায়েজ করার জন্য আট ঘাট বেধে এখানে দূর্গা পুঁজা করছে নাকি? পূজার ব্যাপারে কারো আপত্তি নাই। শহরের বিভিন্ন মহল্লায় পূজা হচ্ছে। কিন্ত মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতি স্তম্ভের ভিতরে পূঁজার আয়োজন মানে মুক্তিযুদ্ধের চেতনার উপর আঘাত। হরিজন রতনের সাথে নতুন নতুন রতন এক হয়েছে। ধন্য কুবুদ্ধি।

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

ফেইসবুক