শাহবাগের অবরোধ থেকে নির্বাচন কমিশন ঘেরাওয়ের কর্মসূচি

শাহবাগের অবরোধ থেকে নির্বাচন কমিশন ঘেরাওয়ের কর্মসূচি

বিক্ষোররত শিক্ষার্থীরা ‘৩০ তারিখের নির্বাচন, মানি না-মানবো না’, ‘আমার সোনার বাংলায়, বৈষম্যের ঠাই নাই’, ‘বঙ্গবন্ধুর বাংলায়, বৈষম্যের ঠাঁই নাই’, ‘পূজার দিনে নির্বাচন, মানি না-মানবো না’ স্লোগান তোলেন।

জাতীয়

নিজস্ব প্রতিবেদক

2020-01-14

সরস্বতী পূজার দিনে ঢাকা সিটি ভোট না করার দাবিতে শাহবাগে সড়ক অবরোধ শেষে নির্বাচন কমিশন ঘেরাওয়ের কর্মসূচি দিয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল শিক্ষার্থী। পূজার জন্য ভোট পেছানোর আবেদন আদালতে খারিজ হয়ে গেলে মঙ্গলবার বিকাল ৫টায় ক্যাম্পাস থেকে মিছিল নিয়ে শাহবাগ মোড়ে অবস্থান নেয় ওই শিক্ষার্থীরা। হাজার খানেক শিক্ষার্থীদের এই অবস্থানের কারণে ব্যস্ত সময়ে গুরুত্বপূর্ণ ওই মোড়ে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। সন্ধ্যা পৌনে ৭টার দিকে ইসি ঘেরাওয়ের কর্মসূচি দিয়ে বিক্ষোভকারীরা শাহবাগ ছাড়লে যান চলাচল পুনরায় শুরু হয়।

আন্দোলনকারীরা জানান, বুধবার (১৫ জানুয়ারি) দুপুর ১২টার মধ্যে নির্বাচনের তারিখ পরিবর্তনের ঘোষণা এবং সরস্বতী পূজার দিনে নির্বাচনের তারিখ ঘোষণা করে সংবিধান পরিপন্থী কাজ করায় সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের পদত্যাগ দাবি জানানো হয়েছে। দাবি মানা না হলে আগারগাঁওয়ের নির্বাচন কমিশন ভবন ঘেরাওয়ের ঘোষণা দিয়েছেন শিক্ষার্থীরা।

জগন্নাথ হল ছাত্র সংসদের বহিরাঙ্গণ ক্রীড়া সম্পাদক অর্নব হোড় জানান, বুধবার দুপুর ১২টার মধ্যে নির্বাচনের তারিখ পরিবর্তনের ঘোষণা না এলে পরবর্তীতে লাগাতার আন্দোলন চলবে। সরস্বতী পূজার দিন নির্বাচনের তারিখ ঘোষণা করে সংবিধান পরিপন্থী কাজ করায় নির্বাচন সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের পদত্যাগ দাবি করছি।

আন্দোলনকারীদের প্রধান সমন্বয়ক জগন্নাথ হল ছাত্র সংসদের ভিপি উৎপল বিশ্বাস বলেন, যদি কাল আমাদের বেঁধে দেওয়া সময়ের মধ্যে সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করা না হয়, তাহলে আমরা নির্বাচন কমিশন ভবন ঘেরাও করবো। এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া সংবিধানের পরিপন্থি দাবি করে এতে যুক্ত ইসির কর্মকর্তাদের পদত্যাগও দাবি করেন তিনি।

অবরোধের কারণে বাংলামোটর থেকে শাহবাগ, সাইন্সল্যাব থেকে শাহবাগ, মৎস ভবন থেকে শাহবাগ ও টিএসসি থেকে শাহবাগমুখী রাস্তায় যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। টানা দেড় ঘণ্টারও বেশি সময় শাহবাগ মোড় অবরোধ থাকায় শাহবাগের আশপাশ এলাকায় অ্যাম্বুলেন্স ছাড়া কোনও যান চলাচল করতে পারেনি। এতে অফিস ফেরত মানুষ ভোগান্তিতে পড়েন। অনেককে পায়ে হেঁটে বাসায় যেতে হয়েছে। যাত্রীবাহী যানগুলো রাস্তায় দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা গেছে।

বিক্ষোররত শিক্ষার্থীরা ‘৩০ তারিখের নির্বাচন, মানি না-মানবো না’, ‘আমার সোনার বাংলায়, বৈষম্যের ঠাই নাই’, ‘বঙ্গবন্ধুর বাংলায়, বৈষম্যের ঠাঁই নাই’, ‘পূজার দিনে নির্বাচন, মানি না-মানবো না’ স্লোগান তোলেন। তাদের সঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন হল ছাত্র সংসদের নেতারাও ছিলেন।

শাহবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবুল হাসান বলেন, রাস্তা অবরোধ করায় অফিস ফেরত মানুষরা ভোগান্তিতে পড়েছেন। আমরা রাস্তা অবরোধ না করতে শিক্ষার্থীদের আহ্বান জানিয়েছিলাম। পরে তারা আন্দোলন স্থগিত করে, এখন যান চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে।

৩০ জানুয়ারি ভোটগ্রহণের দিন রেখে নির্বাচন কমিশন ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার পরপরই তার বিরেধিতা করেছিল পূজা উদযাপন পরিষদ ও হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদও ভোটের দিন পরিবর্তনের দাবি জানায়। কিন্তু এসব আবেদনে ইসি সাড়া না দেওয়ায় এক আইনজীবী রিট আবেদন করেন হাই কোর্ট। মঙ্গলবার আদালত তা খারিজ করে দেওয়ায় ৩০ জানুয়ারিই ভোটগ্রহণের দিন থেকে যায়। এতে ক্ষুব্ধ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা নামে বিক্ষোভে। ক্যাম্পাস থেকে মিছিল নিয়ে শাহবাগে গিয়ে অবস্থান নেন তারা।

পূর্বপশ্চিমবিডি/এসএস

পূর্বপশ্চিম পড়তে ক্লিক করুন https://ppbd.news

© PURBOPOSHCIMBD

window.dataLayer = window.dataLayer || [];
function gtag(){dataLayer.push(arguments);}
gtag(‘js’, new Date());

gtag(‘config’, ‘UA-91641026-1′);

_atrk_opts = { atrk_acct:’2k5Ft1DTcA20Ug’, domain:’ppbd.news’,dynamic: true};
(function() { var as = document.createElement(‘script’); as.type = ‘text/javascript’; as.async = true; as.src = ‘https://certify-js.alexametrics.com/atrk.js’; var s = document.getElementsByTagName(‘script’)[0];s.parentNode.insertBefore(as, s); })();

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

ফেইসবুক