হরিণাকুন্ডুতে পরস্ত্রীর সাথে অনৈতিক কাজ করার সময় সুদে কারবারী রবিউল আবার ধরা গনপিটুনি দিয়ে পুলিশে দিলো এলাকাবাসী

৩৬

স্টাফ রিপোর্টার, ঝিনাইদহ::  ঝিনাইদহের হরিনাকুন্ডু উপজেলার পৌরসভার মুচি পাড়ার সুদে কারবারী রবিউল ইসলামকে অনৈতিক কর্মকান্ডে লিপ্ত থাকার সময় জনতার হাতে ধরা পড়েছে। এ সময় তাকে হরিণাকুন্ডুতে পরস্ত্রীর সাথে অনৈতিক কাজ করার সময় সুদে কারবারী রবিউল আবার ধরা গনপিটুনি দিয়ে পুলিশে দিলো এলাকাবাসী
গনপিটুনি দেওয়া হয়। লম্পট রবিউল হরিণাকুন্ডু শহরের মুচিপাড়ার মৃত. নৈমদ্দিনের ছেলে। শুক্রবার রাত ১২টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। এলাকাবাসি জানায় লম্পট রবিউলের স্ত্রী ও দুই ছেলে থাকার পরও প্রতিবেশি হিন্দু সম্প্রদায়ের এক নারীর সাথে অনৈতিক কর্মকান্ডে লিপ্ত ছিল। এ অবস্থায় এলাকাবাসি হাতে নাথে ধরে ফেলে গন পিটুনি দিয়ে পুলিশের হাতে তুলে দিতে উদ্বত হয়। ওই নারীর স্বামী অভিযোগ করেন দীর্ঘদিন ধরে লম্পট রবিউল তাকে মৃত্যুর ভয় দেখিয়ে তার স্ত্রীর সাথে খারাপ কাজ করে আসছে। ভয়ে আমি কাউকে কিছু বলতে পারি না। তবে ওই নারী জানান আইন সংগত ভাবে রবিউল আমাকে বিবাহ করিয়াছে। বর্তমানে আমি রবিউলের স্ত্রী। ধর্মীয় অনুশাসনের কারনে আমি আগের স্বামীর বাড়িতেই থাকি। এদিকে খবর পেয়ে থানা অফিসার ইনচার্জ আসাদুজ্জামান পুলিশ সদস্যদের নিয়ে ঘটনা স্থলে উপস্থিত হয়ে রবিউল ও উক্ত নারীকে পুলিশ হিফাজতে নিতে চাইলে স্থানীয় ৭নং ওয়ার্ডের কমিশনার আবু সাইদ রুনুর হস্তক্ষেপে নিতে পারেনি। এর আগে লম্পট রবিউল এক কর্মকারের সুন্দরী স্ত্রীর সাথে অনৈতিক কাজ করার সময় এলাকাবাসি হাতেনাথে ধরে ফেলে। পরে হরিনাকুন্ডু বাজার কমিটির সাধারন সম্পাদক ডা:শরিফুল ইসলামের অফিসে এলাকার গন্যমান্য ব্যাক্তি বর্গের উপস্থিতিতে বিষয়টি সুরহা হয়। মাস যেতে না যেতেই লম্পট রবিউল আবার ধরা পড়ে জনতার হাতে গনপিটুনি খেল।

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

ফেইসবুক